Class 9 Physics Assignment Answer 2021

Class 9 Physics Assignment Solution for 6th and 5th Week

Class 9 Physics Assignment 2021 has been published. The Directorate of Secondary and Higher Education DSHE have included Physics  Assignment as an 7th week assignment for Class 9 students. This assignment is also in the next week assignment.

Class 9 Students will complete the Class 9 Assignment 2021 for Physics assignment within the stipulated time and submit it to their school. Physics Teacher will be evaluate the assignment and provide feedback. Besides, he/she will identify the weak points of the student and give instructions to solve them.

Physics  Assignment 2021

Class 9 7th week Assignment 2021 has already been published. In the second week Physics Subject Assignment, the students have been given the --- chapter of their text book as assigned work. The --- chapter of the --- chapter should be well read and practiced by the students. At the end of the exercise you have to write the answer to the assigned task or assignment. Detailed instructions about this are mentioned in the Class 9 Assignment 2021.

Along with the publication of Class 9 Physics Assignment, evaluation guidelines or rubrics have also been published. There are detailed instructions on how to evaluate teachers.

Physics Assignment Download

Physics  Assignment should be downloaded from the website of the Directorate of Secondary and Higher Education. The assignment has already been uploaded in PDF format on the dshe.gov.bd website. If you want, you can also download the Physics Assignment from the following options.

7th Week Assignment

Class 9 Physics Assignment 6th week

Class 9 Physics Assignment Answer Solution

The content of Class 9 Physics Assignment has been selected from your text book. The ---- chapter of your textbook is scheduled for the 7th week. So you will read the scheduled chapter of your text book well. At the end of the reading and practice will create assignments for the topics assigned to your assignment. In this case, you will create the assignment the way you have learned without copying the assignment of others.

9th Week Assignment Answer

বিজ্ঞানের প্রচীনতম শাখা হচ্ছে পদার্থবিজ্ঞান। শুধু তাই নয়, পদার্থবিজ্ঞান হল বিজ্ঞানের সবচেয়ে মৌলিক একটি শাখা। এর ওপর ভিত্তি করে রসায়ন দাঁড়িয়েছে, রসায়নের ওপর ভিত্তি করে জীববিজ্ঞান দাঁড়িয়েছে, আবার জীববিজ্ঞানের ওপর ভিত্তি করে অন্য অনেক বিষয় দাঁড়িয়ে আছে। বিজ্ঞানের যে শাখা পদার্থ ও শক্তি এবং এ দুইয়ের মধ্যে যে আন্তঃক্রিয়া তাকে বোঝার চেষ্টা করে সেটা হচ্ছে পদার্থবিজ্ঞান। 

যেহেতু, বিজ্ঞানের অন্যান্য শাখাগুলো পদার্থবিজ্ঞানের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে, সেহেতু এর পরিসর অনেক ব্যাপক ও বিস্তৃত। পৃথিবীতে যত ধরণের প্রযুক্তি গড়ে উঠেছে তার মূলে রয়েছে পদার্থবিজ্ঞান। 

পদার্থবিজ্ঞানের ক্রমবিকাশ

আধুনিক সভ্যতা হচ্ছে বিজ্ঞানের অবদান। বিজ্ঞানের এই অগ্রগতি একদিনে হয়নি। শত শত বছর ধরে বিজ্ঞানী- গবেষকের অক্লান্ত পরিশ্রমে পদার্থবিজ্ঞান আজকের অবস্থায় পৌঁছেছে। পদার্থবিজ্ঞানেকে দুইটি মূল অংশে ভাগ করা যায়।

ক) ক্লাসিক্যাল পদার্থবিজ্ঞান
খ) আধুনিক পদার্থবিজ্ঞান

 

ক্লাসিক্যাল পদার্থবিজ্ঞানঃ ক্লাসিক্যাল পদার্থবিজ্ঞানের মধ্যে রয়েছে বলবিজ্ঞান, শব্দবিজ্ঞান, তপ ও তাপগতি বিজ্ঞান, বিদ্যুৎ ও চুম্বকবিজ্ঞান, আলোকবিজ্ঞান, তরঙ্গবিজ্ঞান ইত্যাদি।

আধুনিক পদার্থবিজ্ঞানঃ কোয়ান্টাম বলবিজ্ঞান এবং আপেক্ষিক তত্ব ব্যবহার করে যে আধুনিক পদার্থবিজ্ঞান গড়ে উঠেছে, সেগুলো হচ্ছে আণবিক ও পারমাণবিক পদার্থবিজ্ঞান, পার্টিকেল ফিজিকস এবং নিউক্লিয় পদার্থবিজ্ঞান।

আদিপর্বঃ

আজকের যে আধুনিক পদার্থবিজ্ঞান দেখছি প্রাচীনকালে সেটি শুরু হয়েছিল জ্যোতির্বিদ্যা, আলকবিজ্ঞান,     গতিবিদ্যা এবং গনিতের জামিতির সমন্বয়ে। তবে প্রাচীন এই পদার্থবিজ্ঞান অনেকের কাছেই তেমন গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। গ্রিক বিজ্ঞানী থেলিস যুক্তি ছাড়া শুধু ধর্ম ও পৌরণিক কাহিনীনির্ভর ব্যাখ্যাকে গ্রহণ করতে পারেননি। তবে সেই সময়কার বড় দার্শনিক  এরিস্টটলের মাটি, পানি, বাতাস ও আগুন দিয়ে সবকিছু তৈরি  হওয়ার মতবাদটি অনেক বেশি গ্রহণযোগ্যতা পায়।  

বিজ্ঞানের উত্থানপর্বঃ

ইউরোপের রেনেসাঁর যুগে অর্থাৎ ষোড়শ এবং সপ্তদশ শতাব্দীতে পদার্থবিজ্ঞানের বিস্ময়কর বিপ্লবের সূচনা হয়। ১৯৪৩ সালে কোপানির্কাসের লিখা বইয়ে সূর্যকেন্দ্রিক সৌরজগতের ব্যাখ্যা দেন। তবে কোপানির্কাসের তত্ত্বটির কোন বৈজ্ঞানিক প্রমাণ না থাকায় তত্ত্বটি আড়ালেই ছিল। পরবর্তীতে গ্যালিলিও গাণিতিক সূত্রের মাধ্যমে কোপানির্কাসের তত্ত্বটির প্রমান করার মধ্য দিয়ে আধুনিক বৈজ্ঞানের সূচনা করেন। তাই গ্যালিলিওকে আধুনিক বিজ্ঞানের জনক বলা হয়। ১৬৮৭ খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী নিউটনের মহাকর্ষ বলের সূত্রের মধ্যদিয়ে গতিবিদ্যার ভিত্তি তৈরি হয়। 

আধুনিক পদার্থবিজ্ঞান ঃ

ঊনবিংশ শতাব্দীতে প্রচলিত পর্দাথবিজ্ঞান নিয়ে কিছু সংশয় দেখা দেয়। ১৮০৩ সালে ডাল্টন পারমাণবিক তত্ত্ব দিয়েছিলেন, ১৮৯৭ সালে থমসন সেই পরমাণুর ভিতর ইলেকট্রন আবিষ্কার করেছিলেন। পরবর্তীতে ইলেকট্রন থেকে নিউক্লিয়াস আবিষ্কার করা হয়। এরপর বিজ্ঞানী মাইল কোয়ান্টাম তত্ত্ব প্রতিষ্ঠিত করেন। ১৯০৫ সালে আইনস্টাইনের থিওরি অব রিলেটিভিটি থেকে আলোর বেগ স্থির কিংবা গতিশীল সব মাধ্যমে সমান এ বিষয়টির ব্যাখ্যা পাওয়া যায়। থিওরি অব রিলেটিভিটি থেকেই সর্বকালের সবচেয়ে চমকপ্রদ সূত্র E=mc2 বের হয়ে আসে । এবং বস্তুর ভরকে শক্তিতে রুপান্তর করার সম্ভব তা প্রমাণ হয় । এরপর ১৯৩১ সালে এই থিওরি ব্যবহার করে ডিরাক পদার্থের অস্তিত্ব ঘোষণা করেন। ১৮৯৫ সালে এক্সরে  আবিষ্কৃত হল। ১৮৯৬ সালে পরমাণুর কেন্দ্র থেকে তেজস্ক্রিয় বিকিরণের প্রমাণ মেলে। ১৮৯৯ সালে রেডিয়াম আবিষ্কারের মধ্যদিয়ে বিজ্ঞানীরা বুঝতে পারলেন অবিনশ্বর নয়, তাই এগুলো ভেঙে তেজস্ক্রিয় বিকিরণ হয়। 

যুগ যুগ ধরে অসংখ্য বিজ্ঞানীদের গবেষণার ফসল হচ্ছে আজকের এই আধুনিক পদার্থবিজ্ঞান।

6th Week Assignment Answer

স্লাইড ক্যালিপার্সের সাহায্যে একটি মার্বেলের আয়তন নির্ণয়ঃ

কাজের ধাপঃ নিচে স্লাইড ক্যালিপার্সের সাহায্যে একটি মার্বেলের আয়তন কীভাবে নির্ণয় করা যায় তার ধাপ বর্ণনা করা হলঃ

ধাপ ১ঃ স্লাইড কেলিপার্সটিকে নিয়ে এর প্রধান স্কেলের ক্ষুদ্রতম এক ভাগের মান এবং ভানিয়ার স্কেলের মােট ভাগ সংখ্যা কত তা লক্ষ করি। এর পর যন্ত্রটির ভার্নিয়ার ধ্রুবক (VC) বের করি। 

ধাপ ২ঃ এখন মার্বেলটিকে দৈর্ঘ্য বরাবর স্লাইড ক্যালিপার্সের দুই চোয়ালের মধ্যে স্থাপন করে চোয়াল দুটিকে বস্তুর দুই প্রান্তের সাথে স্পর্শ করি। এই অবস্থায় ভার্নিয়ারের শূন্য দাগ প্রধান স্কেলের যে দাগ অতিক্রম করে, সেই দাগের পাঠই হলাে প্রধান স্কেল পাঠ M নির্ণয় করি।

ধাপ ৩ঃ এই অবস্থায় ভার্নিয়ারের কত সংখ্যক দাগ প্রধান স্কেলের যে কোনাে একটি দাগের সাথে মিলে যায় তা নির্ণয় করা হলাে। এটি ভার্নিয়ার সমপাতন V

ধাপ ৪ঃ মার্বেলের আয়তন নির্ণয় 

Your Physics teacher will evaluate your assignment and give his/her opinion. If you copy your assignment from someone else, your teacher will not evaluate your assignment and will instruct you to prepare a new assignment. You are also likely to get low marks in Physics Subject.

But if you want, you can take the help of any of your teachers, classmates or family members. Make your assignment neatly, submit it to the school with the cover page and accept the next assignment.

Category: 

Zircon - This is a contributing Drupal Theme
Design by WeebPal.